প্রচ্ছদ বিনোদন সাগরপাড়ে নারীদের জয়গান

সাগরপাড়ে নারীদের জয়গান

8
0
জনি হক: রুপালি পর্দায় নারী প্রতিনিধিত্ব থাকলেই তা আলাদাভাবে খবরের শিরোনামে উঠে আসে। কিন্তু একটা সময় আসবে, যখন এসব হয়ে যাবে ডাল-ভাত! সেই স্বপ্ন দেখেন কান চলচ্চিত্র উৎসবের ৭৪তম আসরের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের নারী বিচারকরা। ‘পরিচালক’ শব্দের আগে আর ‘নারী’ ব্যবহার হবে না, এমন একটি পৃথিবী দেখার প্রত্যাশায় তারা।
মূল প্রতিযোগিতা বিভাগের বিচারকদের প্যানেলে পুরুষের চেয়ে নারীদের সংখ্যা বেশি। আট বিচারকের পাঁচজনই নারী। তারা হলেন সেনেগাল-ফরাসি পরিচালক মাতি দিওপ, কানাডিয়ান-ফরাসি সংগীতশিল্পী মিলেন ফারমা, আমেরিকান অভিনেত্রী ম্যাগি জিলেনহাল, অস্ট্রিয়ান পরিচালক জেসিকা হাউসনার, ফরাসি অভিনেত্রী মেলানি ল্যঁহো। এছাড়া আছেন আমেরিকান পরিচালক স্পাইক লি, ব্রাজিলিয়ান পরিচালক ক্লেবার মেনদোনচা ফিলো, ফরাসি অভিনেতা তাহের রহিম এবং দক্ষিণ কোরিয়ার অভিনেতা সঙ কাঙ-হো।
নারী বিচারকরা সংবাদ সম্মেলনে আশাবাদ ব্যক্ত করে গেছেন, ‌‘লিঙ্গ বৈষম্যে ইতি ঘটাতে ভূমিকা রাখবে এবারের কান।’ দক্ষিণ ফ্রান্সের সাগরপাড়ে নারীদের জয়গান শোনা যেতে শুরু করেছে এরই মধ্যে।
২০১৯ সালের মতো রেকর্ডসংখ্যক চার নারী পরিচালকের ছবি রয়েছে এবারের মূল প্রতিযোগিতা বিভাগে। তাদের মধ্যে গতকাল উৎসবের চতুর্থ দিনে ফরাসি নারী নির্মাতা ক্যাথেরিন করসিনির ‘দ্য ডিভাইড’ ছবির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার হয়েছে।
গত ৬ জুলাই উদ্বোধনী দিন থেকেই লালগালিচায় দ্যুতি ছড়াচ্ছেন নারীরা। ফরাসি অভিনেত্রী মারিয়ঁন কঁতিয়া, আমেরিকান অভিনেত্রী জোডি ফস্টার, জেসিকা চ্যাস্টেইন, জার্মান অভিনেত্রী ডায়েন ক্রুজার, বেলজিয়ান গায়িকা অ্যাঞ্জেলসহ অনেকে ঝলমলে পোশাকে আলো কেড়েছেন।
কান ক্ল্যাসিকস
ধ্রুপদি ছবির বিভাগে শুক্রবার কান দেখিয়েছে ‘রিপেন্ট্যান্স’, রাউল পেকের ‘লুমুম্বা: ডেথ অব অ্যা প্রফেট’, মাইকেল পাওয়েল ও এমেরিক প্রেসবার্গারের “আই নো হোয়্যার আই’ম গোইং”।
প্রতিযোগিতার বাইরে
আরি ফোলম্যান পরিচালিত অ্যানিমেটেড ছবি ‘হোয়্যার ইজ অ্যান ফ্রাঙ্ক’ প্রদর্শিত হয়েছে গতকাল। মিডনাইট স্ক্রিনিংসে ছিলো ফরাসি পরিচালক জ্যঁ-ক্রিস্তফ-মেরিসের ‘ব্লাডি অরেঞ্জেস’। স্পেশাল স্ক্রিনিং বিভাগে দেখানো হয় ব্রাজিলের করিম আইনোস পরিচালিত ‘ম্যারিনার অব দ্য মাউন্টেনস’।
সিনেমা ডি লা প্লাজ
করোনা মহামারির কারণে দুই বছরেরও বেশি সময় পর ফেরা কান উৎসবে এবার অন্যান্য বিভাগেও নারী পরিচালকদের ছবির সংখ্যা উল্লেখযোগ্য। সিনেমা অ্যান্ড ক্লাইমেট বিভাগে শুক্রবার আয়োজকরা দেখিয়েছে ফরাসি পরিচালক আইসা মাইজার ‘অ্যাভাব ওয়াটার’। কান প্রিমিয়ারে দেখানো হয় ফরাসি পরিচালক ইভা উসোর ‘মাদারিং সানডে’।
আঁ সার্তে রিগায় গতকাল ছিলো রোমানিয়ার তেওদোরা আনা মিহাই পরিচালিত প্রথম ছবি ‘লা সিভিল’। এ বিভাগে বিচারকদের প্রধান ব্রিটিশ নারী নির্মাতা আন্দ্রেয়া আর্নল্ড। ক্যামেরা দ’র বিভাগেও প্রধান বিচারক একজন নারী (মেলানি থিয়েরি)।