প্রচ্ছদ কমিউনিটি সংবাদ ‘লন্ডনে সংহতি সভা’ ডাকসু ভিপি’র উপর আক্রমনকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে

‘লন্ডনে সংহতি সভা’ ডাকসু ভিপি’র উপর আক্রমনকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে

94
0
লন্ডন, ২২শে ডিসেম্বর: ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুর এবং তাঁর সহকর্মীদের উপর ‘মুক্তিযাদ্ধা মঞ্চ’নামে ছাত্রলীগ সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে গতকাল লন্ডনে ঢাকাসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রদের এক প্রতিবাদ ও সংহতি সভা  অনুষ্ঠিত হয় ।
পূর্ব লন্ডনের হোয়াইট চ্যাপেল সেন্টারে অনুষ্ঠিত সভায় এই সন্ত্রাসী আক্রমনকে বাংলাদেশের সকল ছাত্র সমাজ, গণতন্ত্র ও বাক স্বাধীনতার উপর ফ্যাসিবাদী নগ্ন আক্রমন বলে আখ্যায়িত করে অবিলম্বে দুর্বৃত্তদের গ্রেফতার ও বিচারের জোর দাবী জানানো হয় ।
বক্তারা লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন আহত ছাত্রনেতা তুহিন ফারাবী’সহ গুরুতর আহত সকল ছাত্র নেতাকর্মীদের আসু সুস্থতার জন্য সকলের প্রতি দোয়ার আহ্বান জানান। দেশের পরীক্ষিত ও দৃঢ়চেতা ছাত্র অধিকার পরিষদের ন্যায়সঙ্গত আন্দোলনের সাথে দেশে ও প্রবাসে সকলকে সঙহতি প্রকাশের আহ্বান জানিয়ে বক্তারা বলেন, এই জাতীয় দুর্যোগ মোকাবেলা এখন কোন একক দলের দায়িত্ব নয়। দেশপ্রেমিক ছাত্র সমাজ যে দ্বিতীয় মুক্তিযুদ্ধের সূচনা করেছে, দল মত নির্বিশেষে যুগপত অথবা ঐক্যবদ্ধ সংগ্রামের মাধ্যমে এই সংগ্রামকে সাফল্যের দিকে এগিয়ে নিতে হবে। ছাত্রসমাজ জাতিকে পথ দেখিয়েছে কিভাবে অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করেও ফ্যাসিবাদকে মোকাবেলা করতে হয়।‌বক্তারা আরো বলেন, নূররা হেরে গেলে হেরে যাবে বাংলাদেশ। রক্তে কেনা বাংলাদেশকে কোনো ভাবেই পরাজিত হতে দেয়া যাবে না। বক্তারা আরও বলেন, অন্যায় অবিচার আর দু: শাসন বিরোধী চলমান সংগ্রামে এক কোটি প্রবাসী নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করতে পারে না।
সভায় ছাত্র অধিকার আন্দোলনের সংগ্রাম ও কর্মসুচীর সাথে জোড়ালো সমর্থন ও সংহতি প্রকাশ করা হয় ।

সভায় আন্দোলনকে অব্যাহত রাখার জন্য আজকে সারাদেশে বিশ্বিদ্যালয় ও কলেজ সমুহে বিক্ষোভ কর্মসুচী পালনের আহবানের সাথে সংহতি  জানানো হয় ।
এ ছাড়া আগামী ২৮ ডিসেম্বর বিকাল ৫-৩০মি: এ লন্ডনে কার্যকরী কমিটি সভা এবং ৬ জানুয়ারী দুপুর ১২ টায় লন্ডনস্থ বাংলাদেশ হাই কমিশনের সামনে বিক্ষোভ ও স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসুচী ঘোষনা করা হয় ।
ঢাকা বিশ্বিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা ও সলিডারিটি ফর হিউম্যান রাইটস ইউকে র চেয়ারম্যান আব্দুল কাদির সালেহ এর সভাপতিত্বে ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রনেতা ও সিনিয়র সাংবাদিক শামসুল আলম লিটন এর পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন সাবেক ছাত্র নেতা ড: এম এ আজিজ, রফিক আহমেদ,
ড: আজাবুল হক, সাংবাদিক আখতার মাহমুদ , আবু সালেহ মোহাম্মদ ইয়াহইয়া, বিশিষ্ট কবি- সাংবাদিক আহমদ ময়েজ , যুক্তরাজ্য জাসাস নেতা ইমাদুর রহমান ইমাদ , কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব শফিক খান, বিশিষ্ট কবি- সাংবাদিক শেখ মুহিতুর রহমান বাবলু, সাংবাদিক-কমিউনিটি নেতা খান জামাল নুরুল ইসলাম,
আবদুস সালাম , তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ আমিনুর রশীদ ,বিলাল হোসাইন মোল্লা, জয়নাল আবেদীন , মাসুদুর রহমান,  মুহিব্বুল্লাহ,দিলওয়ার মিয়া , মোহাম্মদ মাসুদুজ্জামান ,আব্দুল মোতালিব ও ইরফান আলী ।
সভায় নেতৃবৃন্দ  তাদের বক্তব্যে তথাকথিত মুক্তিযোদ্ধা মন্ঞ্চ কে ভারতীয় আর এস এস এর বাংলাদেশী ব্রান্ঞ্চ উল্লেখ করে বলেন ,এরা বাংলাদেশে ভারতীয় আধিপত্যবাদের ক্ষেত্র তৈরীর জন্য মাঠে নেমেছে। দেশের গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা রক্ষার জন্য এই নব্য ভারতীয় রাজাকারদের বিরুদ্ধে দৃঢ় প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।