প্রচ্ছদ বৃটেন বার্মিংহামে মহান একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন: স্মলহিথ পার্কে একটি স্থায়ী...

বার্মিংহামে মহান একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন: স্মলহিথ পার্কে একটি স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মাণের দাবী

66
0
মো: আতিকুর রহমান : বিনম্র শ্রদ্ধা আর আবেগ মিশ্রিত ভালোবাসায় বার্মিংহামবাসী স্মরণ করলো ভাষার জন্য আত্মদানকারী সকল ভাষা শহীদদের। বাংলাদেশী তথা সকল বাঙলা ভাষাভাষীর গৌরবের এই দিনটিকে উদযাপন করতে বার্মিংহামে সকল শ্রেণীপেশা ও বিভিন্ন সংগঠনের প্রস্তুতির কোন কমতি ছিলোনা, ছিলো নানা আয়োজন। ভাষার জন্য আত্মদানকারী ভাষা শহীদদের স্মরণ করতে বার্মিংহামে বরাবরের মতো এবছর ও দু’টি স্হানে পৃথকভাবে আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবস পালন করাহয়েছে। রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে শুরু হয় ফুলেল শ্রদ্ধা জানানোর আয়োজন।

প্রচন্ড ঠান্ডা উপেক্ষা করে ঐতিহাসিক স্মলহিথ পার্কে এবছর অস্হায়ী শহীদ মিনার স্হাপন করে প্রায় অর্ধশত বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামজিক, সাংস্কৃতিক ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতা কর্মীরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান অমর একুশের ভাষা শহীদদের প্রতি। শিশু, বৃদ্ধ ও যুবকদের পাশাপাশি মহিলাদের উপস্হিতিও ছিলো চোখে পড়ার মতো। সারিবদ্ধমানুষের হাতে ছিলো আলোর মিছিল। বিষাদমাখা কন্ঠে চিরচেনা সেই গান- আমার ভাইয়েররক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারী/ আমি কি ভুলিতে পারি। রক্ত দিয়েকেনা বর্ণমালার প্রচলন সর্বস্তরে প্রচলনের দাবী নিয়ে অমর একুশেরসংগ্রামী চেতনা বুকে ধারণ করে পুরো বার্মিংহামবাসী হয়ে উঠেছিলো উদ্বেলিত।তাদের সাথে কন্ঠ মিলিয়েছেন বার্মিংহাম সিটি কাউন্সিলের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

স্মলহিথ পার্কে বাঙ্গালী কমিউনিটির সাথে শহীদমিনার ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান বার্মিংহামে নিযুক্ত বাংলাদেশের সহকারী হাই কমিশনার। এছাড়া সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ নানা অঙ্গনের বিশিষ্টজনরা ফুলদিয়ে শ্রদ্ধাজানান ৫২’র ভাষা শহীদদের প্রতি। সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার, শফিউরদের আত্নত্যাগের বিনিময়ে যে ভাষা সেই ভাষা সর্বত্র প্রচলনের দাবী ও উঠে অনেকের কন্ঠে। এদিকে এতো সুশৃঙ্খল ও সুন্দর পরিবেশে স্মলহিথ পার্কে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করতে পারায় আয়োজকদের ভূয়সী প্রশংসা করেন কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ ও পার্ক অথরিটি। আর সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে আয়োজকদের কন্ঠে প্রতিধ্বনিত হয় মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত ঐতিহাসিক এই স্মলহিথ পার্কে একটি স্থায়ী শহীদ মিনার নির্মাণের দাবী।

 

মাটি ইউকে ও ইন্টারন্যাশনাল লাংগুয়েস্টিক এন্ড কালচারাল এসোসিয়েশন, মাদার ল্যাংগুয়েজ মনুমেন্ট প্রজেক্ট ও ভাষা শহীদ মিনার নামে ৪টি সংগঠনের সহযোগিতায় অনুষ্ঠান কো অর্ডিনেট করে মাটি ইউ কে ও ইন্টারন্যাশনাল লাংগুয়েস্টিক এন্ড কালচারাল এসোসিয়েশন।
জিয়া তালুকদারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আশরাফুল ওয়াহিদ দুলাল। তাদের সহযোগিতা করেন কমরেড মসুদ আহমেদ, কবির উদ্দিন, আবু হায়দার চৌধুরী সুইট, নুরুল ইসলাম কিসলু, সাইফুর রাজা চৌধুরী পথিক, লুৎফুর রহমান লুকু প্রমুখ ।
জিয়া তালুকদার তাদের এই আয়োজনকে সফল করায় বার্মিংহামবাসীকে ধন্যবাদ জানান।তারা এধারা অব্যাহত রাখতে আগামীতে সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন।
আশরাফুল ওয়াহিদ দুলাল বলেন শহীদ মিনার কারো একার নয় শহীদ মিনার সবার। তিনি তাদের আন্তরিক সহযোগিতার জন্য সকলের নিকট কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ।