প্রচ্ছদ আন্তর্জাতিক আইএস জঙ্গিদের অবাধ সেক্স আর যৌন সঙ্গী

আইএস জঙ্গিদের অবাধ সেক্স আর যৌন সঙ্গী

1914
0
প্রকাশ্যে এল আইএসআইএস-এর ধর্মগুরুর ফতোয়া৷ ২০১৫ সালের ১৯ জুন এই ফতোয়া তৈরি করেছিল আইএস সুপ্রিম৷ যেখানে স্পষ্ট বলা হয়েছে, মহিলা ক্রীতদাসের মালিকরা ইচ্ছা করলেই তাঁদের সঙ্গে যৌন সংসর্গ করতে পারবে৷
সিরিয়া থেকে যে সব মহিলা ও মেয়েদেরকে বন্দি হিসেবে রাখা হয়েছে তাঁদের একপ্রকার ‘যৌনদাসী’ করে রাখা হয়েছে৷ ওই মহিলাদের সঙ্গে অবাধ যৌন সঙ্গম করার নিদান রয়েছে ওই ফতোয়াতে৷
সম্প্রতি মার্কিন ও রুশ বিমান হানা এবং আমেরিকার প্রশিক্ষিত ইরাকি সেনার হামলায় পিছু হটতে বাধ্য হয়েছে আইএস৷ হামলায় গুঁড়িয়ে গিয়েছে তাদের একাধিক ঘাঁটি৷ বাজেয়াপ্ত হয়েছে একাধিক অস্ত্রশস্ত্র সহ বহু নথি৷ ওই নথি ঘেঁটেই এই চাঞ্চল্যকর তথ্য জানাতে পারেন গোয়েন্দা অফিসাররা৷  খুঁজে পাওয়া ওই নথি ঘেঁটে জানা গিয়েছে, মা ও মেয়ে উভয়ের সঙ্গেই যৌন সম্পর্কে লিপ্ত হত আইএস জঙ্গিরা৷ রেহাই পায়নি ১২ বছরের কিশোরীও৷ নির্বিচারেই চলত যৌনতা৷ জানা গিয়েছে, ভালো কাজ করলে জঙ্গিদের উপহার হিসাবে তুলে দেওয়া হয় অল্প বয়সী মেয়েদের৷
২৯ জানুয়ারি, ২০১৫-এর এই নথিতে বলা হয়েছে, খলিফা আইনের ফতোয়া নম্বর ৬৪ অনুযায়ী, বন্দি মহিলাদের ধর্ষণ করে তাঁদের পবিত্র করার অনুমতি আছে আইএস যোদ্ধাদের। এমনকী, প্রয়োজন মনে করলে কোনও আইএস যোদ্ধা নরমাংস ভক্ষণও করতেও পারবে৷ মার্কিন বিশেষজ্ঞদের প্রাথমিক ধারণা, আইএস জঙ্গিদের নিজস্ব ফতোয়া কমিটি রয়েছে, যা সরাসরি আইএস প্রধান আবু বকর আল বাগদাদিকে রিপোর্ট করে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here