প্রচ্ছদ আন্তর্জাতিক প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নিলেন এরদোগান

প্রেসিডেন্ট হিসাবে শপথ নিলেন এরদোগান

35
0
SHARE
ছবি: ওয়েভসাইট
অনলাইন ডেক্স: রজব তাইয়্যেব এরদোগান তুরস্কের প্রথম নির্বাহী প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন। গত মাসে নির্বাচনে জয়লাভের পর আজ সোমবার নতুন মেয়াদে শপথ নেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট। আঙ্কারার পার্লামেন্ট ভবনে এই শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে তুরস্ক নতুন সংসদীয় ব্যবস্থায় প্রবেশ করল। গত বছর সংবিধান সংশোধনের মাধ্যমে এই নতুন ব্যবস্থার প্রবর্তন করা হয়।
প্রেসিডেন্ট ভবনে অনুষ্ঠিত এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে রুশ প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি মেদভেদেভ, ভেনুজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো ও কাতারের আমির তামিম বিন হামাদ আল থানিসহ বেশ কিছু বিদেশী নেতা ও রাষ্ট্রপ্রধান উপস্থিত ছিলেন। বিবিসি, আলজাজিরা, রয়টার্স।
নতুন ব্যবস্থায় ৬৪ বছর বয়সী এরদোগান দেশের নির্বাহী বিভাগের প্রধানের দায়িত্ব পালন করবেন। এখন থেকে তিনি ভাইস প্রেসিডেন্ট নিয়োগ ও বহিষ্কার করার মতা পাবেন। প্রধানমন্ত্রীর পদ বাদ দিয়ে নতুন ব্যবস্থায় ভাইস প্রেসিডেন্ট রাখা হয়েছে। এ ছাড়া সংসদের অনুমতি ছাড়াই তিনি মন্ত্রিসভার সদস্য, শীর্ষ প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও জ্যেষ্ঠ বিচারপতি নিয়োগ দিতে পারবেন। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এখন সংসদ ভেঙে দেয়া, নির্বাহী আদেশ ও জরুরি অবস্থাও জারি করার মতার অধিকারী।
এরদোগানের দল একে পার্টি গত ২৪ জুন অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ৪২.৫ শতাংশ ভোট পেয়েছে। তাদের জোটের শরিক দল ন্যাশনাল মুভমেন্ট পার্টি-এমএইচপি পেয়েছে ১১.১ শতাংশ ভোট। এই দুই দল মিলে সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে। একই দিন অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ৫২.৫ শতাংশ ভোট পেয়ে দেশের প্রথম নির্বাহী প্রেসিডেন্ট হন এরদোগান।
২০০৩ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত তিন মেয়াদে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন এরদোগান। ২০১৪ সালেই তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। এর আগে ১৯৯৪ থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত ইস্তাম্বুলের মেয়র ছিলেন। ২০১৬ সালের এক ‘ব্যর্থ গণ-অভ্যুত্থানের’ পর ২০১৭ সালে এক গণভোটে সামান্য ব্যবধানে জয়লাভ করেন এরদোগান। এতে তিনি দেশটিকে সংসদীয় ব্যবস্থা থেকে প্রেসিডেন্ট শাসিত ব্যবস্থার দিকে নিয়ে যাওয়ার পে জন রায় পান। গত ২৪ জুনের নির্বাচনেও জয় পান এরদোগান। এর মধ্য দিয়ে নির্বাহী মতা পাচ্ছেন তিনি।