প্রচ্ছদ ইমিগ্রেশন এশিয়ান বংশোদ্ভূত যৌন নির্যাতনকারীদের নাগরিকত্ব কেড়ে নেবে বৃটেন

এশিয়ান বংশোদ্ভূত যৌন নির্যাতনকারীদের নাগরিকত্ব কেড়ে নেবে বৃটেন

421
0
SHARE
এশিয়ান বংশোদ্ভূত যৌন নিপীড়নকারীদের যুক্তরাজ্যের নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়া হবে। এমনকি সাজা শেষে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে। দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এমন পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে। এ খবর দিয়েছে দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট।
হোয়াইট  হল সূত্র জানিয়েছে, বৃটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তেরেসা মে তার বিশেষ আইনি ক্ষমতার পরিধি আরও বিস্তৃত করতে চান। ওই ক্ষমতা অনুযায়ী, একাধিক নাগরিকত্বধারী মারাত্মক অপরাধীদের বৃটিশ নাগরিকত্ব কেড়ে নিতে পারে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এখন পর্যন্ত মূলত, সন্ত্রাসী ও সন্ত্রাসীদের প্রতি সহানুভূতিশীল ব্যক্তিদের পাসপোর্ট কেড়ে নেয়ার ক্ষেত্রে এ ক্ষমতা প্রয়োগ করা হয়েছে। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ একাধিক সূত্র জানিয়েছে, সামপ্রতিক বছরগুলোতে বহু শহরে যৌন নির্যাতনকারী বিভিন্ন এশিয়ান গ্যাং-এর তৎপরতা উদঘাটিত হয়েছে। ফলে ‘পাসপোর্ট কেড়ে নেয়া ও সম্ভাব্য প্রত্যাবর্তন’ বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।
বুধবার রোথেরহ্যামে ধর্ষণ, বলপূর্বক পতিতাবৃত্তি, আক্রমণ সহ বিভিন্ন অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয় পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত বৃটিশদের একটি গ্যাং। গতকাল তাদের সাজা দেয়া হয়েছে। এদের বৃটিশ নাগরিকত্ব কেড়ে নেয়া হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এরপর তাদের পাকিস্তানে ফেরত পাঠানোর আইনি কার্যক্রম শুরু করাও হতে পারে। উত্তর ও মধ্য ইংল্যান্ডজুড়ে এশিয়ান পুরুষ গ্যাংগুলোর হাতে শ্বেতাঙ্গ নারীদের নির্যাতনের ঘটনায় বিচার চলছে। আরও বিচার শিগগিরই শুরু হবে।

মানবজমিন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here